বিটকয়েনে বিপাকে অমিতাভ বচ্চন

ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েনে বিনিয়োগ করে বলিউডের মেগা স্টার খ্যাত অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন এখন মুনাফা অর্জন কিংবা তা খোয়ানোর আশা-নিরাশায় রয়েছেন। কারণ এই মুদ্রায় তাঁর বিনিয়োগের মূল্যমান মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে বেড়ে আড়াই লাখ মার্কিন ডলারে (বাংলাদেশের দুই কোটি টাকার বেশি) উঠে আরও কম সময়ে আবার ধপাস করে ১ লাখ ৭৫ হাজার ডলারে নেমে গেছে।

ওই সময়ে বিটকয়েনে অমিতাভের বিনিয়োগের মূল্যমান ১০০ কোটি ডলার বেড়েছিল, যা আবার ৭৫ কোটি ডলারে নেমে গেল। বিটকয়েনের দামে ব্যাপক উত্থান-পতনের কারণেই অমিতাভের বিনিয়োগের মূল্যমান কমে যায়। বছরখানিক ধরে দরবৃদ্ধির ধারাবাহিকতায় এই ডিজিটাল মুদ্রার দাম একপর্যায়ে ২০ হাজার ডলারে ওঠে, তা আবার কমে গত শুক্রবার ১২ হাজার ডলারে নেমে যায়। এরপরে অবশ্য দাম বেড়ে ১৫ হাজার ডলারে ওঠে।

বিটকয়েনে বিনিয়োগের সুবাদে ভালো মুনাফা হওয়ার সুবাদে ভারতের সেলিব্রেটিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয় করা ব্যক্তিদের তালিকায় ২০তম স্থানে উঠে আসেন অমিতাভ বচ্চন। তালিকাটি যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস-এর। খবর হিন্দুস্তান টইমস ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এর।

ভারতীয় সিনেমার সুপার স্টার অমিতাভ বচ্চন প্রায় আড়াই বছর আগে বিটকয়েনে বিনিয়োগ করেন। ভারতের বহু নাগরিক বিটকয়েনসহ বিভিন্ন ভার্চ্যুয়াল মুদ্রায় বিনিয়োগ করেন। তবে বিটকয়েনে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত অমিতাভের নামটাই সবচেয়ে বড়।

বিটকয়েন হচ্ছে একটি ডিজিটাল বা ভার্চ্যুয়াল মুদ্রা। ‘মাইনিং’ নামের একটি জটিল প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে মুদ্রাটির প্রচলন শুরু হয়। বিশ্বজুড়ে কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিটকয়েনের লেনদেন কার্যক্রম ও তার ওপর তদারকি চলে। তবে এর পেছনে কোনো দেশেই সরকারি সমর্থন নেই।

No Comments

    Leave a reply