এফিলিয়েট মার্কেটিং

সহজ ভাষায় এফিলিয়েট মার্কেটিং হলো আপনি কোন প্রডাক্ট বিক্রয় করতে কাওকে সাহায্য করছেন । মনে করেন আপনার কিছু প্রডাক্ট রয়েছে অনলাইন ভিত্তিক বা অফলাইন যেখানেই হোক আপনাকে আমি বিক্রয় করতে সাহায্য করলাম । মানে আমি আপনাকে একজন ক্রেতা খুজে দিলাম বিনিময়ে আপনি আমাকে কিছু কমিশন দিলেন । এই পুরো পদ্ধতিটাকেই এফিলিয়েট মার্কেটিং বলে ।

আশার কথা হলো পুরো পৃথিবীর প্রায় সব কমার্স সাইটেরই এফিলিয়েশন অপশনটি চালু রয়েছে তা ছাড়া অনেক বড় বড় মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেমনঃ ক্লিক ব্যাংক , ক্লিক সিঊর । আপনি এসব মার্কেট প্লেস থেকে খুব সহজেই আপনার পছন্দ মত প্রডাক্ট খুজে বের করে কাজ করতে পারবেন ।

এসব মার্কেটপ্লেসে বিভিন্ন ক্যাটাগড়ি ভিত্তিক প্রডাক্ট রয়েছে । তাছারা পৃথিবীর অন্যতম বড় অনলাইন ই কমার্স সাইট এমাজন ডট কম এর এফিলিয়েশন খুব জনপ্রিয় । এফিলিয়েশন মার্কেটিং শুরু করার জন্য আপনার তিনটি  জিনিস অবশ্যই থাকতে হবেঃ

১. সময় ।

২. একটি ওয়েব সাইট । ( সব ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয় কিন্তু এমাজন এফিলিয়েশনের জন্য থাকা জরুরী )

৩. ইনভেস্টমেন্ট এবিলিটি ।

সময়ঃ এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে আপনাকে প্রচুর পরিমানে সময় দিতে হবে । প্রডাক্ট রিসার্চ এবং অন্যান্য কাজে আপনাকে অনেক সময় ব্যয় করতে হবে  এবং আপনি যদি ফ্রী ট্রাফিক মেথডে কাজ করেন তাহলে আপনাকে বেশি পরিমানে সময় দিতে হবে । আর প্রথম দিকে আপনাকে আমি ফ্রী মেথডে কাজ করার জন্যই সাজেস্ট করবো।

 

ওয়েব সাইটঃ  আপনি যদি এমাজন এফিলিয়েট শুরু করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার একটি ওয়েব সাইট থাকতে হবে । আপনি আপনার ওয়েব সাইটে এমাজন প্রডাক্ট রিভিও আকারে বা পোস্টের মাধ্যমে বা এডভারটাইজে দিয়ে রাখবেন কেউ যদি আপনার লিংকে গিয়ে উক্ত প্রডাক্টটি কিনে তাহলে আপনি সেখান থেকে কমিশন পাবেন । এমাজন এফিলিয়েশন একটি লং টাইমের ব্যাপার । আপনার প্রথম মাস থেকে ও আয় হতে পারে আবার ৩-৪ মাসেও কোন আয় নাও হতে পারে । কিন্তু আপনি যদি আপনার ওয়েব সাইট টিকে ভালো একটি সার্চ ইঞ্জিন পজিশনে আনতে পারেন তাহলে আপনি কি পরিমান কমিশন পেতে পারেন চিন্তা ও করতে পারবেন না ।

 

ইনভেস্টমেন্ট এবিলিটিঃ এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হলে আপনাকে ইনভেস্ট করতেই হবে এটা হোক শুরুতে হয়তো বা পরে । প্রত্যেকটা ট্রফিকের জন্য আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে সময় + মেধা + টাকা । প্রত্যেক টা আরটিকেলের জন্য আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে । আর যদি আপনি নিজেই আরটিকেল লিখতে পারেন তাহলে খুবই ভালো! এক্ষেত্রে আপনাকে আপনার মেধা ও সময় ইনভেস্ট করতে হবে ।

 

এমাজন এফিলিয়েট করা হয় একটি ওয়েব সাইটের মাধ্যমে কিন্তু অন্যান্য এফিলিয়েশন সেলস ফানেল সিস্টেমে লেন্ডিং পেইজের মাধ্যমে করা হয় । এমাজন এফিলিয়েশনের জন্য আপনাকে সুন্দর করে একটি রিভিও সাইট বানাতে হবে । আপনি রিভিও সাইট বাদেও বিভিন্ন উপায়ে ওয়েব সাইটের মাধ্যমে এমাজন এফিলিয়েশন  করতে পারেন । কিন্তু এমাজনের রিভিও সাইট গুলাতে প্রচুর সেল হয় । এজন্য অবশ্যই আপনার সাইট টি জনপ্রিয় হতে হবে । ক্লিক ব্যাংক , ক্লিক সিউর ইত্যাদি মার্কেট প্লেসেও আপনি বিভিন্ন উপায়ে ওয়েব সাইটের মাধ্যমে  সেল করতে পারেন কিন্তু এক্ষেত্রে সেলস ফানেল সিস্টেম টা খুব জনপ্রিয় । প্রথমে আপনাকে ভালো কিছু প্রডাক্ট বাছাই করতে হবে তারপর একটি সেলস ফানেল ক্রিয়েট করে আপনার লেন্ডিং পেইজ টা বিভিন্ন ট্রাফিক ম্যাথডে প্রমোশন করতে হবে ।